মঙ্গলবার, ১৭ মে ২০২২ , ৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯

Ads
  • হোম / শিল্প-সাহিত্য

প্রকাশ :২২ ফেব্রুয়ারী ২০২০ , ০৬:০৩ AM

সাংবাদিক সাদেক খানকে নিয়ে বইয়ের মোড়ক উন্মোচন

Share
single image

বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে অতিথিরা।

ঢাকা: মৃত্যুর বছরখানেক আগে আত্মজীবনী লেখা শুরু করেছিলেন প্রখ্যাত সাংবাদিক সাদেক খান। অসমাপ্ত অবস্থায় রেখে যাওয়া সেই আত্মস্মৃতি, তার বিভিন্ন সময়ে লেখা কলাম এবং তাকে নিয়ে গুণমুগ্ধদের লেখা নিয়ে প্রকাশিত হলো ‘আমার দাদা সাদেক খান’ বইটি। যা গ্রন্থনা ও সম্পাদনা করেছেন মানোয়ার হোসেন।

শুক্রবার (২৭ ডিসেম্বর) বিচারপতি আবদুল জব্বার খান ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা ও অ্যার্ডন পাবলিকেশন্স থেকে প্রকাশিত বইটির প্রকাশনা উৎসব অনুষ্ঠিত হয়েছে। যাতে বিশিষ্টজনেরা অংশ নিয়ে নিজেদের আলাপনে তুলে ধরেন সাদেক খানের জীবন ও কর্ম।

রাজধানীর বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের ইসফেন্দিয়ার জাহেদ হাসান মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত এ আয়োজনে সভাপতিত্ব করেন সাবেক কূটনৈতিক ও আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য ইনাম আহমেদ চৌধুরী।

আলোচনায় অংশ নেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, সাদেক খানের বোন ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান, হলিডে সম্পাদক সৈয়দ কামালউদ্দীন।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিচারপতি আবদুল জব্বার খান ফাউন্ডেশনের সভাপতি রাশেদ খান মেনন এবং সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক শহীদুল্লাহ খান বাদল। আরও বক্তব্য রাখেন বইটির অন্যতম প্রকাশক অ্যাডর্ন পাবলিকেশন্সের স্বত্ত্বাধিকারী সৈয়দ জাকির হোসাইন ও সম্পাদক মানোয়ার হোসেন।

অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য ইনাম আহমেদ চৌধুরী বলেন, বর্তমান ও আগামী প্রজন্মের কাছে সাদেক খানকে তুলে ধরার জন্য এ বইটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এ বইয়ে সামগ্রিকভাবে সাদেককে উপস্থাপন করা হয়েছে। এ বইয়ের মাধ্যমে সাদেক খানকে নতুন করে আবিষ্কার, জানার ও উপলব্ধি করা সম্ভব।

ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, আমাদের এ দেশ যুদ্ধ করে অর্জিত। কেউ কিনে বা জোগার করে দেননি। সে দেশকে রক্ষার দায়িত্ব বর্তমান প্রজন্মের। আর তার জন্য এ বইটি পাঠ করা প্রয়োজন।

‘সাদেক খান সারাজীবন নিজের আদর্শে অবিচল থেকে যুদ্ধ করে গেছেন। তিনি অত্যন্ত সজ্জন ও ভদ্রলোক ছিলেন। সমাজে এমন মানুষের সংখ্যা কম। তার সব সময় সুখী, সমৃদ্ধশালী ও জনকল্যাণকর রাষ্ট্রের কথা বলে গেছেন।’

বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেন, সাদেক খান শুধুমাত্র আমাদের ভাই-বোনদের দাদা ছিলেন না। তিনি তার সব অনুজের দাদা ছিলেন। এ বইটি প্রকাশের উদ্দেশ্য সাদেক খানকে জানানোর বা চেনানোর জন্য নয়। তার যাপিত সময়কে সবার সামনে তুলে আনার জন্য।

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান বলেন, দাদা আমাদের কাছে বটগাছের ছায়া।  তিনি স্নেহ, মমতা ও ভালোবাসা দিয়ে আমাদের আপ্লুত করেছেন। তিনি তার লেখায় সব সময় দিক-নির্দেশনা দিয়ে গেছেন। তা গ্রহণ করলে সমৃদ্ধশালী বাংলাদেশের স্বপ্ন অনেক আগেই পূরণ হয়ে যেতো।

‘আমার দাদা সাদেক খান’ বইয়ের প্রচ্ছদ করেছেন তাজ মোহাম্মদ। এর মূল্য ৯৯০ টাকা।

এই বিভাগের আরো খবর ::

নামাজের সময়সূচী

তারিখ ১৭ মে ২০২২

  • ফজর

    ৫:১৭

  • যোহর

    ১২:১৩

  • আছর

    ৪:৪৫

  • মাগরিব

    ৫:৫২

  • এশা

    ৭:০৪

  • সূর্যোদয় : ৬:৩৪
  • সূর্যাস্ত : ৫:৫২
Image

অনলাইন জরিপ

করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় ‘লকডাউন’ নিয়ে আপনি কি মনে করছেন?