সোমবার, ২৭ জুন ২০২২ , ১৩ আষাঢ় ১৪২৯

Ads

প্রকাশ :১৫ জুন ২০২২ , ১১:১২ AM

স্বপ্নের পদ্ধা সেতু নয়,পদ্ধা সেতু এখন বাস্তবতার - জসিম

single image

পর্তুগালের রাজধানী লিসবনের বাইরে বৃহত্তর বানিজ্যিক নগর পোর্তো।পর্তুগাল আওয়ামী লীগের গুরুত্বপূর্ণ একটি ইউনিট পোর্তো আওয়ামী লীগ।গত রবিবার মোশাররফ হোসেন কিরনের সভাপতিত্বে ও কফিল উদ্দিন শাকিলের সঞ্চালনায় পোর্তো আওয়ামী লীগের কর্মীসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।


এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পর্তুগাল আওয়ামী লীগের সভাপতি জনাব জহিরুল আলম জসিম তার বক্ত্যবে বলেছেন "আপনারা সবাই বলেন স্বপ্নের পদ্ধা সেতু।কিন্তু আমি বলি সেটা স্বপ্নের ছিল,এ সেতু আর স্বপ্নের মধ্যে সীমা নেই।এই পদ্ধা সেতু এখন বাস্তবতার"যোগ করেন তিনি।
উক্ত কর্মীসভার প্রধান বক্তা পর্তুগাল আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক দেলওয়ার হোসাইন বলেন, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট থেকে শুরু করে মেট্রোরেলের মত বড় বড় বাজেটের উন্নয়ন কর্ম পরিকল্পনার স্বপ্ন বাস্তবায়নে জননেত্রী শেখ হাসিনার কোন বিকল্প নেই।


জামায়াত বিএনপির সকল আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে শীঘ্রই পর্তুগাল আওয়ামী লীগের অন্তর্ভুক্ত গুরুত্বপূর্ণ পোর্তো আওয়ামী লীগকে নতুন নেতৃত্বে সাজানো হবে।যারা ইতিপূর্বে সফলতার সাথে দায়িত্ব পালন করেছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতাও প্রকাশ করেন তিনি।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি মিজানুর রহমান মোল্লা,যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এমরান হোসেন ভূইয়া,সাংগঠনিক সম্পাদক জামাল ফকির,দপ্তর সম্পাদক জাকির হোসাইন।এসময় উপস্থিত ছিলেন লিসবন মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা আব্দুল্লাহ আল মামুন।সমাবেশে পর্তুগাল আওয়ামী লীগের সফর সঙ্গী হিসেবে বক্তব্য দিয়েছেন পর্তুগাল আওয়ামী যুবলীগের যুবলীগ নেতা অনুপম মেহেদী অনু ও যুবলীগ নেতা খন্দকার ইউনুস ফাহাদ সহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।
সমাপনী বক্তব্যে পোর্তো আওয়ামী লীগের সভাপতি জনাব মোশাররফ হোসেন কিরন লিসবন থেকে আগত সকল নেতাকর্মীদের ধন্যবাদ জানিয়ে সংগঠনকে গতিশীল করতে তৃণমূল ও কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ সহ সকলের সহোযোগিতা কামনা করে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করেন।

এই বিভাগের আরো খবর ::

নামাজের সময়সূচী

তারিখ ২৭ জুন ২০২২

  • ফজর

    ৫:১৭

  • যোহর

    ১২:১৩

  • আছর

    ৪:৪৫

  • মাগরিব

    ৫:৫২

  • এশা

    ৭:০৪

  • সূর্যোদয় : ৬:৩৪
  • সূর্যাস্ত : ৫:৫২
Image

অনলাইন জরিপ

করোনা সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় ‘লকডাউন’ নিয়ে আপনি কি মনে করছেন?